জেলা আওয়ামী লীগে কোনো হাইব্রিড নেই-সাইদুল করিম মিন্টু

0
2

জাহিদুর রহমান তারিক,ঝিনাইদহঃ দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ভারতীয় সীমান্তবর্তী জেলা ঝিনাইদহ। ইতিহাস,ঐতিহ্যে ভরা এ জেলায় রাজনৈতিক সহাবস্থানের নজির নেই বললেই চলে।

জেলায় দেশের বড় সবগুলো রাজনৈতিক দলের কর্মকান্ড লক্ষ করার মতো। সমস্যা, সংকট ও প্রতিবন্ধকতার বিরুদ্ধে লড়াই করে বিভিন্ন দলের সাংগঠনিক কর্মকান্ড এখানে চলমান। ১৯৮৪ সালে বৃহত্তর যশোর থেকে আলাদা হয়ে আত্মপ্রকাশ করা এ জেলার সর্বশেষ রাজনৈতিক অবস্থা অনুযায়ি ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের কমিটিতে কোনো অনুপ্রবেশকারী নেই। বিভিন্ন এলাকায় কিছু অনুপ্রবেশকারী অতীতে সুযোগ পেলেও ভবিষ্যতে আর পাবে না। উপজেলা কমিটিতে কিছু হাইব্রিড নেতা থাকলেও আগামীতে তাদের বাদ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র সাইদুল করিম মিন্টু।

ঝিনাইদহ জেলা আওয়ামী লীগ সহাবস্থানের রাজনীতিতে বিশ্বাসী দাবি করে সদর পৌরসভার দুই মেয়াদের মেয়র সাইদুল করিম মিন্টু বলেন,আমরা সব দলের রাজনৈতিক অধিকারে বিশ্বাসী। তবে অন্যান্য দল সহাবস্থানে বিশ্বাসী নয়। তাই নানা সংকট তৈরি হয়। এই জেলায় ৬টি উপজেলা রয়েছে। এর মধ্যে শৈলকুপা ছাড়া সবগুলোতেই আওয়ামী লীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটি রয়েছে।

জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি,সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাবেক যুগ্ম সম্পাদক সাইদুল করিম মিন্টুর অভিযোগ,বিএনপি-জামায়াতের কিছু সুযোগ সন্ধানী আওয়ামী লীগের ঘাড়ে বসে তাদের সাংগঠনিক কাজ চালিয়ে যাচ্ছে। এছাড়া জেলায় একসময়ের চরমপন্থি খ্যাত আন্ডার ওয়ার্ল্ডের সন্ত্রাসীরা সক্রিয় হচ্ছে। তার আশঙ্কা এই সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আসন্ন ইউনিয়ন ও পৌরসভা নির্বাচনে সন্ত্রাসী কার্যক্রম চালাতে পারে। ঝিনাইদহে বিএনপি একটি অস্তিত্বহীন দল এমন দাবি করে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, রাজপথে আন্দোলন করার মতো শক্তি তাদের নেই। যে কারণে তারা রাজপথ থেকে সরে গেছে।

তিনি বলেন, ২০০৮ সালে নবম সংসদ নির্বাচনে সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করে সরকার গঠন করে আওয়ামী লীগ। এরপর থেকে ধারাবাহিকভাবে ২০১৪ ও ২০১৮ সালের নির্বাচনেও সরকার গঠন করে গণমানুষের প্রিয় দল আওয়ামী লীগ। প্রতিটি নির্বাচনে জেলার চারটি সংসদীয় আসনে বিজয়ী হয় নৌকার প্রার্থীরা। আর একাধিক মেয়াদে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকায় জেলার উন্নয়ন কর্মকান্ড চলমান রয়েছে। কৃষকরা তাদের উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছেন। ঝিনাইদহে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোটের দলগুলোর মধ্যে সুসম্পর্ক রয়েছে উলেস্নখ করে সাইদুল করিম মিন্টু বলেন,জোটভুক্ত সব দলের সাথে নিয়মিত যোগাযোগ রয়েছে। কেন্দ্র ঘোষিত সব কর্মসূচিতে তাদের আমন্ত্রণ করা হয়।

আওয়ামী লীগ নেতা ও পৌর মেয়র সাইদুল করিম মিন্টু বলেন, করোনাকালে মাঠে থেকে নিম্ন আয়ের মানুষের বাড়ি বাড়ি খাবার পৌঁছে দেওয়া হয়েছে দলের পক্ষ থেকে। বিভিন্ন মহলস্নার বাড়ি বাড়ি গিয়ে মানুষের সচেতনতা বৃদ্ধিতে সক্রিয় ছিলেন তার দলের নেতাকর্মীরা। এখনো সেসব কাজ চলমান রয়েছে। এছাড়া জেলার অধিবাসীদের জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিতে প্রয়োজনীয় কর্মকান্ডে দলের নেতাকর্মীরা সম্পৃক্ত রয়েছেন।

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন