ঝিনাইদহে প্রেমের ফাঁদে জিম্মি চক্রের তিন সদস্য আটক

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহঃ ঝিনাইদহে প্রেম প্রতারনা চক্রের তিনজনকে আটক করেছে সদর উপজেলার পাগলাকানাই ইউনিয়নের ভড়ুয়াপাড়ার গ্রামবাসী।

আটককৃতরা হলো, উপজেলার বিষয়খালি গ্রামের আরব আলীর মেয়ে আঞ্জু, একই গ্রামের এস এম ডাক্তারের ছেলে মোঃ কামাল ও চুয়াডাঙ্গা জেলার মোঃ সোহেল। সোহেল বিষয়খালি গ্রামের জনৈক দুদুর জামায়।

শনিবার দুপুর ২টার দিকে ঝিনাইদহ সদরের ভড়ুয়া পাড়া গ্রামে মাঠের মধ্যে একটি ছেলেকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে মার ধর করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার সময় হাতে নাতে তাদেরকে আটক করে গ্রামবাসী। গ্রামবাসী সুত্রে জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে সুন্দরী নারী দিয়ে প্রেমের জালে ফাঁসিয়ে সহজ সরল মানুষের অর্থ কড়ি টাকা পয়সা লুটে নিচ্ছে সবই চক্রটি। ধনী বাক্তি অথবা বড় ব্যবসায়ী ব্যক্তিকে টার্গেট করে আঞ্জু তার সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। এরপর তাকে নিজেদের নির্বাচন করা স্থানে দেখা করার জন্য আসতে বলা হয়। লোকটি দেখা করতে আসলে আঞ্জু তার সাথে প্রেমালাপ করে। এরপর পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী পাঁশে অত পেতে থাকা প্রতারক সোহেল ও কামাল তাদের ধরে ফেলে এবং ছেলেকে মার ধর করতে থাকে। পরে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

শনিবার বেলা ২ টার দিকে চক্রটি ভড়ূয়া পাড়া গ্রামে ধরা পড়ে। এব্যাপারে পাগলা কানাই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম বলেন, এই চক্রটি মাঠের মধ্যে একটি ছেলেকে মার ধর করছিল। বিষয়টি গ্রাম বাসীর নজরে আসলে তাদের নিকট এগিয়ে যায়। সেসময় প্রতারনার স্বীকার হওয়া লোকটি গ্রামবাসীকে ঘটনা খুলে বললে গ্রামবাসী তাদেরকে আটক করে। সেসময় প্রতারক চক্রটি বিকাশের মাধ্যমে তার অভিভাবকের নিকট থেকে ৩৫,০০০ টাকা নিয়েছে বলে স্বীকার করে। চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম জানিয়েছেন, আমি বিকাশের টাকা গুলো আদায় করার পর প্রশাসনের নিকট হস্তান্তর করবো।

আপনার মতামত দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন